মেনু নির্বাচন করুন

পূর্ববর্তী মামলার রায় ১

 

পূর্ববর্তী মামলার রায়

 

মামলা নং

শুনানীর তারিখ

বিবরণ

রায়/ সিদ্ধামত্ম

০৮৪

০১-০৯-২০১৯

১৫-০৯-২০১৯

২২-০৯-২০১৯

রায়ের তারিখ

২৯-০৯-২০১৯

বাদীঃ-মানিক সরকার    

বিবাদীঃ- কাউছার সরকার

মুরগির খামারের ও গাছের ডালার জন্য পরিবেশ নষ্ট হবার কারনে বাড়ির দক্ষিন ও পূব পাশে নতুন খামারে বতমানে যা আছর তার অর্ধেক করা ও দক্ষিন,পশ্চিম পাশে পুরাতন খামের পাশে দেওয়াল দিতে হবে ও গাছের ডালা পালা কাটিয়ে দেওয়ার নিদেশ প্রধান করা হিইল 

গ্রামঃ পূব ইসলামাবাদ

ইউনিয়নঃ ১৩ নং ইসলামাবাদ

উপজেলাঃ মতলব উত্তর

জেলাঃ চাঁদপুর

বিভাগঃ চট্রগ্রাম

মামলা নং ধরনঃ ০৮৪/২০১৯ ফৌজদারী

মামলা নিষ্পত্তির সময়কালঃ ২৯দিন

 

সাধারন পরিচিতিঃ মানিক সরকারম, পিতা: সুলতান সরকার, গ্রাম:পূর্ব ইসলামাবাদ, ইউনিয়নঃ ১৩ নং ইসলামাবাদ ইউনিয়ন, উপজেলাঃ মতলব উত্তর, জেলাঃ চাঁদপুর দুই পুত্র সন্তান নিয়ে অতি সাধারনভাবে জীবন যাপন করেন। সে কৃষি গরু পালন করে

বিরোধের সুত্রপাতঃ কাউছার সরকার এর মুরগির খামারের ও গাছের ডালার জন্য পরিবেশ নষ্ট হবার কারনে, ঝগড়ার সৃস্টি হয় তাই এলাকার স্থানীয় গন্যমান্য লোকদের নিয়ে একটি শালিশী করেন। শালিশীতে কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। এবং প্রতিবাদীরা শালিসি বৈঠকে আসেনি

গ্রাম আদালতের সহায়তা গ্রহনঃ এভাবে একের পর এক প্রচেষ্টা করতে করতে শেষ পর্যন্ত মানিক সকরার  গ্রাম আদালতের শরনাপন্ন হন। সে সময় তিনি একে বারেই হতাস নিরাশ হয়ে যান। তিনি এক পর্যায়ে সমাধান পাবার আসা ছেড়ে দেয় ঠীক সে সময় আসার আলো হয়ে আসেন ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। তিনি সকল বিষয়ে মানিক সরকার     এর কাছ থেকে শোনে। ইউপি সদস্য কাউছার সরকার  কে ১৩ নং ইসলামাবাদ  ইউনিয়নের গ্রাম আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। মানিক সরকার    গ্রাম আদালতের নাম শোনে ঘাবড়ে যান। ইউপি সদস্য তাকে গ্রাম আদালত সম্পর্কে বিষদ ভাবে বুঝান। অতপর ইউপি সদস্যের কথায় মানিক সরকার     এর নিজের বাড়ি থেকে কি.মি. দূরে ইউনিয়ন পরিষদে আসেন।  

গ্রাম আদালতে মামলাঃ মানিক সরকার     ১৩ নং ইসলামাবাদ ইউনিয়নে যান। প্রার্থমিক পর্যায়র তিনি গ্রাম আদালত সহকারীর সাথে দেখা করেন। সকল কথা খোলে বলেন। তিনি গ্রাম আদালতের প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবগত হন। বিষয়ে গ্রাম আদালত সহকারী সব কিছু খুলে বলেন। অতপর মানিক সরকার     ০১-০৯-২০১৯ তারিখে ১০টাকা ফি দিয়ে গ্রাম আদালতে মামলা করে।  

তিনি সঠিক সমাধান এর জন্য ) কাউছার সরকার  এর বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারী মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০৮৪/২০১৯ দিনই চেয়ারম্যান সাহেব মামলাটি গ্রহন করেন। ০৫-০৯-২০১৯ খ্রিঃ তারিখে পরিষদে হাজির হওয়ার জন্য প্রতিবাদীর প্রতি সমন জারী করা হয়। নির্ধারিত তারিখে আবেদনকারী প্রতিবাদী  উপস্থিত হন। তখন চেয়ারম্যান সাহেব আবেদনকারীর অভিযোগ সম্পর্কে প্রতিবাদীকে অবগত করেন। প্রতিবাদী আবেদনকারীর অভিযোগ স্বীকার করেন এবং দাবী সম্পূর্ন রুপে পূরণ দিয়েছে প্রতিবাদী

রায় পরবর্তি অবস্থাঃ প্রতিবেশী মানকি সরকার সঠিক বিচার এর আসা ছেড়ে দিয়ে ছিনেল কিন্তু গ্রাম আদালতের মাধ্যমে সঠিক বিচার পান এই অপ্রত্যাশিত প্রাপ্তিতে তিনি খুব খুশী হন

মানিক সরকার স্বপ্নঃ তিনি জানান এই উপকারের জন্য মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। কিন্তু ব্যর্থ হন। গ্রাম আদালতের মাধ্যমে তার মত দরিদ্রের ন্যয্য অধিকার আদায় করা সম্ভব হয়েছে। তাই তিনি বলেন গ্রাম আদালতের মত শ্রেষ্ঠ আদালত আর হতে পারে না।   

তথ্য সংগ্রকারীঃ মামুনুর রশিদ, গ্রাম আদালত সহকারী, 13 নং ইসলমাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ, মতলব উত্তর, চাঁদপুর।  

 

 

--------------------------------------------  

গ্রামঃ বড় হলদিয়া